অজ্ঞাতনামাঃ লাশের গল্পে রাজনৈতিক সিনেমা

তৌকির আহমেদের “অজ্ঞা্তনামা” দেখতে দেখতে আরো দুটো লাশকেন্দ্রিক সিনেমার কথা মনে পড়লো। মোরশেদুল ইসলামের শর্টফিল্ম “চাকা” এবং শ্রীলঙ্কান নির্মাতা প্রশন্ন ভিতানাগে (Prasanna Vithanage)’র Purahanda Kaluwara (Death on a Full Moon Day)।

চাকাকে বাংলাদেশের স্বাধীনধারার চলচ্চিত্রের ইতিহাসে অন্যতম পথিকৃৎ ধরা হয় (মোরশেদুল ইসলামের “আগামী”, তানভির মোকাম্মেল এর শর্টফিল্ম “হুলিয়া” এবং তারেক মাসুদের “নরসুন্দর” এর সাথে সাথে)। এটিও একটি নাম পরিচয়হীন (অজ্ঞাতনামা) লাশকে নিয়ে আবর্তিত হয়, যে লাশটি অতি আবশ্যকীয়ভাবেই ধর্ম-জাতের পরিচয়হীন। লাশটিকে তার গ্রামে পৌছানোর দায়িত্বে থাকা মুসলমান গারোয়ানের মধ্যে সেই নাম পরিচয়হীন ও ধর্মের পরিচয়হীন লাশের প্রতি যে মায়া তৈরি হয়, যে শ্রদ্ধাবোধ জাগ্রত হয় সেটিই চলচ্চিত্রটিকে আলাদা মাত্রা দেয়। সেলিম আল দীনের অসাধারণ একটি রচনা (কথানাট্য) থেকে বানানো এই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি মাইল ফলক। এর বদৌলতে আন্তর্জাতিক পরিসরে GRAND PRIX পুরস্কার প্রাপ্তিও একটা উল্লেখযোগ্য ঘটনা বলতে হবে। Continue reading

গৌতম ঘোষের ‘শঙ্খচিল’ দর্শন

গৌতম-ঘোষ-পরিচালিত-শঙ্খচিল-ছবির-একটি-দৃশ্য

গৌতম ঘোষ পরিচালিত শঙ্খচিল-এর শুরুতে দেখা যায়, বিজিবি কর্মকর্তার সঙ্গে এক সাংবাদিক ভারত-বাংলাদেশের সীমানা নিয়ে ঠাট্টা করছেন। বিএসএফের গুলিতে নিহত কাঁটাতারে ঝুলতে থাকা বাংলাদেশির খবর সংগ্রহে এসেছেন সাংবাদিক। বিএসএফ কর্মকর্তার জবানিতে এ হত্যাকান্ডের কারণ হলো ‘ব্লাডি হিস্ট্রি’, মানে ব্রিটিশ ইন্ডিয়ার ভাগাভাগি। এটাও কি সম্ভব? Continue reading

চোখে ভাসে ‘হাঙর নদী গ্রেনেড’

hangor-nodi-grenedeমুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্রের কথা বলা হলেই আমাদের মনে যে নামগুলো ভেসে ওঠে- হাঙ্গর নদী গ্রেনেড তার মধ্যে নেই। ওরা ১১ জন, আলোর মিছিল, আগুনের পরশমনি; এ কালজয়ী ছবিগুলোর মাঝে কেন যেন হারিয়ে যায় ‘হাঙ্গর নদী গ্রেনেড’। তা যাক, কিন্তু কখনও যদি জানতে ইচ্ছে করে সেই মায়ের কথা, যিনি দেশের জন্য সন্তানকে বিসর্জন দিতে পারেন, এ আত্মত্যাগ কতটুকু স্বার্থহীন হতে পারেন তাহলে দেখতে হবে ‘হাঙ্গর নদী গ্রেনেড’। Continue reading

কতটা রং ছড়িয়ে ছিল ‘মেঘের অনেক রং’

megher-onek-rangঢালিউডে নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের কাহিনী নির্ভর অন্যতম সিনেমা ‘মেঘের অনেক রং’। ১৯৭৬ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি পরিচালনা করেন হারুনর রশীদ। বোদ্ধাদের মন জয় করলেও সাধারণ দর্শকদের মনোযোগ কাড়তে পারেননি ক্লাসিকটি। Continue reading

অজ্ঞাতই থেকে গেল অজ্ঞাতনামা

%e0%a6%85%e0%a6%9c%e0%a7%8d%e0%a6%9e%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%ae%e0%a6%be

‘অজ্ঞাতনামা’ ঢাকায় মেইনস্ট্রিম প্রদর্শনীতে খুব বেশী সাড়া ফেলতে পারেনি। অনেক হলে দুই তিন দিন চলার পর নামিয়ে ফেলে। অযুহাত ছিল একই সময়ে আয়নাবাজি মুক্তি পেয়েছিল। কিছু একটা বানিয়ে ফেললেই সিনেমা হয়না। ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ছবি বলে একটা পূর্ব ধারণা নিয়ে ছবিটা দেখতে বসেছিলাম। তা হলো কোন অসামঞ্জস্য থাকতে পারে। তবুও তৌকির আহমেদের ছবি বলে আশ্বস্থ ছিলাম -ছবিটি নড়বড়ে হবেনা। ইমপ্রেস তো ইমপ্রেসই। এরা যে ব্যতিক্রম দেখাবেনা তারই প্রমাণ দিল অজ্ঞাতনামায়।
Continue reading

মুখ ও মুখোশের আড়ালে আয়নার ভেলকিবাজির গল্প

aynabaji

শহরের অলিগলিতে হাজার লোকের বাস। কেউবা ভালো, কেউবা মন্দ। আবার ভালো মানুষের মুখোশের আড়ালে থাকে কিছু মন্দ মানুষ-দাগী আসামীরা। টাকার জোরে সেসব ক্ষমতাবান আসামীরা পার পেয়ে যায়। তাদের কারনে বা তাদের হয়ে জেল খাটে নিরপরাধ সহজ-সরল মানুষেরা। কেউ কেউ জেল খাটে মাস বা বছর, কারো হয়ে যায় মৃত্যুদন্ড বা ফাঁসি। এদের মধ্যে কেউ কেউ এটাকে পেশা হিসেবে নিয়ে নেয়। এমনি একজনের গল্প এই আয়নাবাজি। এই শহরের গল্প ‘আয়নাবাজি’। Continue reading

বসগিরি : দিশাহীন অনুভূতি !

bossgiri-shakib

গেলাম, দেখলাম, উঠে এলাম!!! মাঝ দিয়ে কিছু সময় চলে গেল। কথায় আছে সময় ও নদীর স্রোত কোনদিন কারো জন্য অপেক্ষা করে থাকে না। শুধু স্মৃতি হয়ে রয়ে যায়। আমার স্মৃতির মণিকোঠায় ‘বসগিরি’ও আপন মহিমায় উজ্জ্বল হয়ে থাকবে আজীবন। কী পেলাম বা কী পেলাম না মাঝে মাঝে সে হিসেব যেন খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়ে। যখন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র একটু একটু করে আলোর মুখ দেখে সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে তখন উন্নতির কোনো লক্ষণ না চোখে পড়লে, সেখানে স্থির হয়ে থাকবার আশঙ্কা মনে দানা বাধবে এটাই স্বাভাবিক। Continue reading

রক্ত : বিস্বাদ গল্পের সুন্দর নির্মাণ

rokto

জাজ মাল্টিমিডিয়ার রক্ত বেশ বড় বাজেটের মুভি তাতে কোন সন্দেহ্ নেই। ছবির নায়ক, নায়িকাও দেখতে বেশ সুন্দর। কিন্তু ছবিটির গল্প রীতিমত বস্তাপচা। তারপরও আমার মতে, ছবিটি বাণিজ্যিক মুভি হিসেবে একেবারে খারাপ না। অন্তত বর্তমান বস্তাপচা ছবির ভিড়ে এ ছবিটি অনেক দিক থেকেই অন্য সাধারণ ছবি থেকে ভালো। Continue reading

আনন্দ অশ্রু : ভালো লাগার অন্য নাম কষ্ট

Ananda osru with salman shah shabnur dildar kanchi by shibli sadik
ভালোলাগা কি? আমার কাছে ভালোলাগা মানে বারবার সেদিকে ফিরে তাকানো, বারবার দেখা। কিন্তু ভালো লাগার অন্য নাম কষ্ট, তা আমি উপলব্ধি করেছি ❝আনন্দ অশ্রু❞ সিনেমাটি দেখার পর। এতো ভালো লেগেছে যে এই সিনেমা আমি একবারের বেশি আর দেখতে পারি নি। সিনেমার আবেগ এতো প্রবল ভাবে নাড়া দিয়েছিল যে দ্বিতীয় বার সিনেমাটি দেখি নি। ভালোলাগা যে শুধুমাত্র ভালোবাসা থেকে জন্ম নেয় তা নয় ভয় এবং কষ্ট থেকেও ভালোলাগা জন্ম নেয়। ❝আনন্দ অশ্রু❞ সেই কষ্টের নাম। সালমান শাহ এর পাগল হয়ে থাকা, শাবনূরের ভালোবাসার কাছে যেতে চাওয়ার প্রবল আকাঙ্ক্ষা, কাঞ্চির মনের মানুষকে ভালো করে তোলার প্রয়াস সব কিছু দিয়ে সিনেমাটি এতো হৃদয়স্পর্শী ছিল যা মানুষের মনে কষ্টের দাগ রেখেছিল। Continue reading

“অজ্ঞাতনামা” কথা

Oggatonama-the-unnamed-film-by-toukir-ahmed-with-mosharraf-karim-impress-telefilm poster fazlur rahman babuসিনেমার পোস্টার খুব সাদামাটা, কিন্তু সেই পোস্টারের একটি জায়গায় কেন জানি নিজের দুষ্টু চোখটা স্থির হয়ে গেল। অজ্ঞাতনামা শব্দটার ইংরেজি Unnamed এর Un অক্ষরটি লাল রঙের করে দেয়া পোস্টারে। সিনেমা শুরুর আগেই মাথায় চিন্তা ঘুরতে লাগল- সিনেমাটা কি অপরাধের, অনিয়মের নাকি অস্তিত্ব সংকটের? এই কারণেই কি অ বা Un কে লাল করে দেয়া? সিনেমা শেষে বুঝলাম- গল্পটা আসলে সব কিছুরই। Continue reading