কাজী উজ্জ্বল

কাজী উজ্জ্বল মূলত ছোট পর্দার অভিনেতা। তবে তিনি অল্প কিছু চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। সাধারণত হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয় করেন কাজী উজ্জ্বল।

ক্লাস ফোরে থাকতে এক ক্লাস উপরের ছাত্র মামার সাথে মিলে স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠানে দুজনে মিলে সুকুমার রায়ের লেখা ‘ষোল আনাই মিছে’ কবিতাটি নাটিকা আকারে মঞ্চস্থ করেছিলেন কাজী উজ্জ্বল। সেখানে তার চরিত্রটি ছিলো মাঝির। আর এভাবেই অভিনয়ের শুরু। তারপর থেকে স্কুল কলেজের সব আয়োজনেই ছিলো সরব উপস্থিতি।

আশির দশকের শুরুতে যশোর থেকে ঢাকায় আসেন কাজী উজ্জ্বল। বছর তিনেক মঞ্চে অভিনয়ের জন্যে ঘোরাঘুরি শেষে বড় ভাইয়ের বন্ধু আজিজুল হক এবং সালাহউদ্দিন লাভলুর সুবাদে ১৯৮৪ সালে কর্মশালার মাধ্যমে আরণ্যকে যোগ দেন তিনি। সেখানে আব্দুল্লাহিল মাহমুদের ‘ননকার পালা’য় কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে মঞ্চ নাটকে ক্যারিয়ার শুরু করেন। তবে ২০০৭ সালে এসে নাট্যধারায় যোগ দেন। বর্তমানে টিভি নাটকের পাশাপাশি নাট্যধারায় নিয়মিত কাজ করছেন।

নব্বইয়ের দশকের শুরুতে মামুনর রশীদের সঙ্গে প্রোডাকশনে কাজ শুরু করেন কাজী উজ্জ্বল। সে সময় বিটিভির জন্যে ‘সুপ্রভাত ঢাকা’ শিরোনামে একটি নাটক নির্মাণ করা হয়। এতে অভিনয়ের মাধ্যমে প্রথম সবার নজরে আসেন কাজী। তারপর থেকে অভিনয় করেই যাচ্ছেন। সব মিলিয়ে নাটকের সংখ্যা পাঁচশ-ছয়শ।  আবদুল্লাহ আল মামুন পরিচালিত ‘দরিয়া পাড়ের দৌলতী’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে বড়পর্দায় কাজ শুরু করেন কাজী উজ্জ্বল। তিনি সব মিলিয়ে প্রায় পনেরোটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

বাংলালিংকের আলাল-দুলাল বিজ্ঞাপনের অভিনয় করেও সাড়া ফেলেছিলেন এই অভিনেতা। সব মিলিয়ে প্রায় ছাব্বিশটি বিজ্ঞাপনে মডেলিং করেছেন কাজী উজ্জ্বল।

 

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

অন্যান্য ব্যক্তি