কাজী মোরশেদ

কাজী মোরশেদ বাংলাদেশের সবচে বেশী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সিনেমা ‘ঘানি’র কাহিনীকার এবং নির্মাতা। চলচ্চিত্র নির্মানের পাশাপাশি তিনি টিভি নাটক নির্মান করেছেন।

চিত্রপরিচালক কাজী মোরশেদ সত্তরের দশকে তার চলচ্চিত্রে তার কর্মজীবন শুরু করেন পরিচালক এস এম শফির সহকারী হিসেবে। কিন্তু কিছুদিন পর তিনি বাংলাদেশ বেতারে প্রোগ্রাম প্রডিউসার হিসেবে যোগদান করেন।  পরবর্তীতে তিনি আবার চলচ্চিত্রাঙ্গনে ফিরে আসেন এবং পরিচালক আমজাদ হোসেনের সহকারী হিসেবে কাজ শুরু করেন, তার থেকে চলচ্চিত্র নির্মঅন শিক্ষা গ্রহন করেন। তার প্রথম পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘সান্তনা’। চলচ্চিত্র পরিচালনার পাশাপাশি তিনি বেশ কিছু টিভি নাটকও পরিচালনা করেছেন।

চলচ্চিত্র নির্মানে একাধিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন কাজী মোরশেদ। তার “ঘানি” চলচ্চিত্রটি ২০০৬ সালে ১১ টি শাখায় জাতীয় পুরষ্কার অর্জন করে। তার প্রথম ছবি সান্ত্বনার চিত্রনাট্যের জন্যও তিনি জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। দ্য লক নামের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনের সুখ-দুঃখ ও স্বপ্ন বাস্তবতাকে ঘিরে চলচ্চিত্র নির্মানের প্রস্তুতি নিয়েছিলেন তিনি। ছবিটিতে রাইসুল ইসলাম আসাদ এবং ডলি জহুরের পাশাপাশি নতুন তিনটি মুখের অভিনয় করার কথা ছিল।

গুরুতর অসুস্থ হয়ে ১ অক্টোবর বুধবার রাজধানীর শ্যামলীতে অবস্থিত জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ভর্তি হন কাজী মোরশেদ। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় বৃহস্পতিবার। শুক্রবার সকাল ৭টায় তিনি মারা যান। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

 

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম কাজী মোরশেদ
জন্ম তারিখ এপ্রিল ২৪, ১৯৫০
মৃত্যু তারিখ অক্টোবর ৩, ২০১৪
জন্মস্থান হিঙগুলি, মিরেরসরাই, চট্টগ্রাম

কর্মপরিধি

পুরষ্কার

পুরষ্কার বছর ফলাফল বিভাগ/গ্রহীতা চলচ্চিত্র
জয়ী শ্রেষ্ঠ পরিচালক ঘানি
জয়ী শ্রেষ্ঠ কাহিনী ঘানি
জয়ী শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার ঘানি
জয়ী শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা ঘানি