মতিন রহমান

মতিন রহমান (Motin Rahman) বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সফল পরিচালক। চলচ্চিত্র পরিচালক আজিজুর রহমানের সহকারী হিসেবে চলচ্চিত্রে তিনি যাত্রা শুরু করলেও পরবর্তীতে তিনি চলচ্চিত্র পরিচালনায় সফলতা অর্জন করেন।

১৯৮২ সালে লাল কাজল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। ছবির নামকরণে ছবিটির গল্পকার চিত্রনাট্যকার অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের অবদান ছিল। ছবিটির স্লোগান ছিল – দুধের রং সাদা, কাজলের রং কালো – লাল কাজল। ছবিটি ব্যবসাসফল না হলেও সমালোচক মহলে প্রশংসিত হয়।

মতিন রহমানের আরেকটি পরিচয় হল তিনি শখের অভিনেতা। বিভিন্ন সিনেমায় তিনি ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি অভিনয় শুরু করেন ৭০ দশকে। আজিজুর রহমান পরিচালিত ‘অতিথি’ ছবিতে অভিনয় করেন একজন কাজীর চরিত্রে। ছবিতে শাবানাআলমগীরের বিয়ে পড়ানোর দায়িত্ব পালন করেন। এরপর নিজের পরিচালিত ‘স্নেহের বাঁধন’ ছবিতে কিংবদন্তি অভিনেত্রী শাবানার স্বামীর ভূমিকায় অভিনয় করেন। নিজের পরিচালিত রাক্ষসীতে করেন পূর্ণিমার বাবা এবং ‘নারীর মন’ ছবিতে অভিনয় করেন রিয়াজ ও শাকিলের শিক্ষকের চরিত্রে। তা ছাড়া ছোটখাটো চরিত্রে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করলেও দীর্ঘদিন পর বড় কোন চরিত্রে অভিনয় করছেন মতিন রহমান।

মতিন রহমান আরেক গুণী চলচ্চিত্র নির্মাতা আলমগীর কবির কর্তৃক স্থাপিত ঢাকা ফিল্ম ইন্সটিটিউটের দ্বিতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থী। চলচ্চিত্র বিষয়ে গবেষনার পাশাপাশি তিনি স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে চলচ্চিত্র বিষয়ে অধ্যাপনার সাথে জড়িত।

১৯৫২ সালে নওগাঁয় নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন এই পরিচালক। নওগাঁ এবং শান্তাহারে তিনি তার শৈশব কাটিয়েছেন। নওগাঁতেই গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করে তিনি ঢাকায় চলে আসেন এবং চলচ্চিত্রে স্থায়ী হন। পরিচালক আজিজুর রহমান তার আপন বড় মামা। মতিন রহমানরা ছয় ভাই দুই বোন। পারিবারিক জীবনে তিনি স্ত্রী নাসিমা খানমের গর্ভে নওরিন, নওশিন এবং মৃত্তিক নামে তিন সন্তানের গর্বিত জনক।

 

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম মতিন রহমান
জন্মস্থান নওগাঁ।