তামান্না

বাংলাদেশী চলচ্চিত্রে স্বল্প সময়ে দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়ে আবার হারিয়ে যাওয়া নায়িকাদের অন্যতম তামান্না (Tamanna)। সাইফুল আজম কাশেম পরিচালিত ত্যাজ্যপুত্র চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু হলেও শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘ভণ্ড’ দিয়ে তিনি প্রথম রূপালী পর্দায় উপস্থিত হন এবং দর্শকের মনে আসন গেড়ে বসেন।

তামান্না মিডিয়ায় আসেন মডেলিং এর মাধ্যমে। আফজাল হোসেন নির্মিত স্টারশিপ বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছিলেন তিনি। তবে চলচ্চিত্রে কাজের আগ্রহ থাকার কারণে এর পরে আর কখনো বিজ্ঞাপনে কাজ করা হয়ে উঠেনি তার। অতঃপর ভণ্ড চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্রাঙ্গনে প্রবেশ করেন। বলা হয়, ভণ্ড সে সময় প্রায় ৫ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল।

১৯৯৮ সাল থেকে শুরু করে ২০০২ সাল পর্যন্ত বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন তামান্না। তারপর তিনি চলে যান তার ছোট্টবেলার আবাসস্থল সুইডেনে। তামান্নার জন্ম ঢাকা শহরে হলেও চার বছর বয়সেই বাবা-মা’র সাথে সুইডেনে পাড়ি জমান। সেখানেই ডে কেয়ারে শুরু হয় তার ছাত্রজীবন। এরপর রিংকেবি স্কুলান (স্কুল)-এ ভর্তি হলেন। তারপর হুদিংগে কলেজ এবং ২০০২ সালে চলচ্চিত্রকে সাময়িকভাবে বিদায় জানিয়ে সুইডেনে ডেন্টাল কলেজ থেকে ২০০৯ সালে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন।

আট বছর পর দেশে ফিরে তামান্না পাগল তোর জন্য রে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তারপর পুনরায় চলচ্চিত্রকে বিদায় জানিয়ে প্রবাসে পাড়ি জমান। মাঝের আট বছরের বিরতি সম্পর্কে তিনি আমারদেশ-এর সাথে সাক্ষাতকারে জানান, ‘আমার পরিবারের সবাই আর আমি নিজেও চেয়েছি নিজেকে আগে শিক্ষিত করে তুলতে। তারপর না হয় ফেরা যাবে। তাছাড়া আমি মনে করি শিক্ষাই একজন মানুষকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে পারে। তাই বিরতির এই সময়টিকে চেষ্টা করেছি একজন পূর্ণাঙ্গ মানুষ হতে।’

সুইডেনের নাগরিক তামান্না বর্তমানে পেশায় একজন ডেন্টিস্ট। সুইডেনে একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে ডেন্টিস্ট হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি। তামান্নার মা তাহমিনা হুদা।

 

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম তামান্না হাসিন হুদা
ডাকনাম তামান্না
জন্ম তারিখ জানুয়ারী ১, ১৯৭৯
জন্মস্থান ঢাকা। পৈতৃকবাড়ি কুমিল্লা।