শবনম পারভীন

নেতিবাচক চরিত্রে অল্প যে কজন অভিনেত্রী বাংলাদেশী চলচ্চিত্রে শক্ত অবস্থান গড়তে সক্ষম হয়েছেন শবনম পারভীন (Shabnam Parvin) তাদের অন্যতম। মঞ্চ নাটক থেকে তিনি ছোট পর্দায় এবং পরবর্তীতে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। তিনি প্রথম অভিনয় করেন ১৯৮২ সালে আলাউদ্দিন আহমেদের প্রযোজনায় ‘দুটি গানের একটি সুর’ নাটকে। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘আগুন পানি’ ১৯৮৮ সালে মুক্তি পায়। কে এম আইয়ুবের এ ছবিতে নায়িকা চরিত্রে কাজ করেন তিনি। ১৯৮৬ সালে ‘শুকতারা’ ছবিতে খলনায়িকা চরিত্রে প্রথম অভিনয় তার।

শবনম পারভীন একাধিক চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছেন। তার প্রযোজনা সংস্থার নাম শবনম প্রোডাকশন। ‘শবনম প্রোডাকশন্স’ থেকে তিনি প্রথম ছবি প্রযোজনা করেন এ জে রানা পরিচালিত ‘মৃত্যুদন্ড’ ছবিটি। এরপর তিনি একে একে প্রযোজনা করেন ‘পাপী শত্রু’, ‘সত্যের সংগ্রাম’, ‘ভয়ংকর নারী’ , ‘দুর্ধর্ষ পামেলা’ ও ‘কুখ্যাত জরিনা’। ‘কুখ্যাত জরিনা’ ছবিতে তিনি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন। এছাড়া শবনম পারভীন বেশ কিছু নাটক পরিচালনা করেন।  সাইফুল ইসলাম মান্নুর রচনায় ‘বিভ্রাট’ তার পরিচালিত প্রথম খন্ড নাটক। এটি ১৯৯৯ সালে এটিএন বাংলায় প্রচার হয়েছিলো। তার পরিচালিত অন্যান্য নাটকের মধ্যে রয়েছে ‘স্বপ্ন খেয়া’, ‘এমন মজা হয় না’, ‘ধোয়া তুলসী পাতা’ ইত্যাদি।

শবনম পারভীন দীর্ঘদিন ধরে হানিফ সংকেতের ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদির নাট্যাংশে নানীর চরিত্রে অভিনয় করছেন। তার স্বামীর নাম শিমুল আহমেদ।

 

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম সৈয়দা খোদেজা পারভীন
ডাকনাম শবনম পারভীন
জন্ম তারিখ জানুয়ারী ১৭, ১৯৬৬
জন্মস্থান মানিকগঞ্জ।