ইলিয়াস কোবরা

তিনি একজন খলনায়ক। অন্যান্য খলনায়কদের সাথে তার পার্থক্য হল – তিনি আগাগোড়াই খলনায়ক, কখনো নায়ক ছিলেন না। তার আরেকটি পরিচয় হল – তিনি মার্শাল আর্ট জানা খলনায়ক। তিনি কোবরা, ইলিয়াস কোবরা – প্রায় পাঁচ শতাধিক চলচ্চিত্রের খলনায়ক।

ইলিয়াস কোবরা ১৯৮৭ সালে মাসুদ পারভেজ (সোহেল রানা) পরিচালিত ‘মারুক শাহ’ চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন। এ সময় তার সাথে খলনায়ক হিসেবে ড্যানি সিডাকও অভিনয় করেছিলেন। চলচ্চিত্রে আসার আগে ইলিয়াস কোবরা মার্শাল আর্টের স্কুল চালাতেন। তিনি বার্মা থেকে মার্শাল আর্ট শিখে এসেছিলেন। কংফু নায়ক রুবেলের যোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তিনি অনেকগুলো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এই রুবেলের সাথে মিলেই তিনি এফডিসি-তে শিল্পী সমিতির নির্বাচন করেছিলেন। অবশ্য শাকিব খান-মিশা সওদাগর প্যানেলের কাছে তাদের প্যানেল পরাজিত হয়।

হাতে গোনা কয়েকটি চলচ্চিত্রে ইতিবাচক চরিত্রেও অভিনয় করেছেন ইলিয়াস কোবরা। বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ভালোবেসে মরতে পারি চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম ইতিবাচক চরিত্রে অভিনয় করেন। এছাড়া হিরো দ্য সুপারস্টার ছবিতেও তার চরিত্রটি ইতিবাচক ছিল।

ইলিয়াস কোবরা একজন চলচ্চিত্র প্রযোজকও। তিনি ভাইয়া নাম্বার ওয়ান চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেন।

 

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম ইলিয়াস কোবরা
জন্ম তারিখ জানুয়ারী ২০, ১৯৬১
জন্মস্থান বাহারছড়া, টেকনাফ।

কর্মপরিধি