কাজলের দিনরাত্রি ()

৭.২
আপনার রেটিঙঃ
- / ১০ X
রেটিঙঃ ৭.২/১০, ভোট দিয়েছেন ৫ জন | সমালোচক রেটিঙঃ
দর্শক মন্তব্যঃ টি

কাহিনী সংক্ষেপ

কাজল বড় ঘরের ছেলে। বাবা-মায়ের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়ে গেলে এই কিশোরের চেনাজানা জগৎটা একেবারে তছনছ হয়ে যায়।নানারকম তিক্ততার অভিজ্ঞতা ঘটতে থাকে তার। কাজল কিন্তু এই নতুন পরিবেশেই নিজেকে মানিয়ে নিতে চেষ্টা করে। এবং এই খাপ খাইয়ে নেয়ার প্রবণতা থেকেই সে নতুন জীবনে বেঁচে থাকার প্রাণশক্তি লাভ করে। ফাইনাল পরীক্ষা হয়ে গেলে কাজল তার বন্ধুদের সঙ্গে চা বাগানে বেড়াতে যায়। কিন্তু সেখানে এক নতুন বিপত্তি ঘটে কাজলের জীবনে। বাবার অঢেল টাকা থাকার কারণেই চা-বাগান থেকে কাজল ও তার বন্ধুরা অপহৃত হয়। মুক্তিপণের জন্য যখন ওদের আটকে রাখা হয়েছে কাজল তখনও দমে যায় না, বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে নতুন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়, কীভাবে পালিয়ে যাওয়া সম্ভব সেটা নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে পরিকল্পনা করতে শুরু করে। kajoler dinratri

প্রধান অভিনেতা - অভিনেত্রী

no image আশেক হোসেন তন্ময় কাজল
no image তারিন শায়লা
no image আল মনসুর আলতাফ নবী
no image শামীম শাহেদ জালাল স্যার
ঝুনা চৌধুরী জয়ন্ত
no image ইরেশ যাকের মাজহার
no image জয়িতা মহালনবিশ মাধুরী
সকল কলাকুশলী

ছবি এবং ভিডিও

গান

গান গীতিকার সুরকার শিল্পী পর্দার শিল্পী
আমরা হয়ে গেছি বড় কবির বকুল লাকী আখান্দ মাম মিনতে নূর আখান্দ -

প্রধান কলাকুশলী

কাহিনী মুহম্মদ জাফর ইকবাল
চিত্রনাট্য সজল খালেদ
সংলাপ সজল খালেদ
সঙ্গীত পরিচালক লাকী আখান্দ
সুরকার লাকী আখান্দ
গীতিকার কবির বকুল
সকল কলাকুশলী

অন্যান্য তথ্যাবলী

মুক্তির তারিখ ৯ আগস্ট, ২০১৩
ফরম্যাট ডিজিটাল
রং রঙিন
নির্মাণ ব্যয় ৬০ লাখ টাকা
দেশ বাংলাদেশ
ভাষা বাংলা
শ্যুটিং লোকেশন শ্রীমঙ্গলের পাত্রখোলা চা-বাগান, ঢাকার প্রভাতী বিদ্যানিকেতন ও আরো কয়েকটি ইংরেজি মাধ্যমের স্কুল

ট্রিভিয়া

  • শিশুতোষ এই চলচ্চিত্রের জন্য ২০১০ সালে সজল খালেদ সরকারি অনুদান লাভ করেন। খালেদই প্রথম এত অল্প বয়সে সরকারি অনুদানের জন্য মনোনীত হন।
  • ২৯ ডিসেম্বর ২০১২ এই ছবিটির প্রিমিয়ার হয় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর পরীক্ষণ থিয়েটার হলে।
সব ট্রিভিয়া দেখুন →

রিভিউ লিখুন

আরও ছবি