শাবনূর

পরিচালক এহতেশাম এর হাত ধরে ‘চাঁদনি রাতে’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে যাত্রা শুরু করেন শাবনূর (Shabnur). প্রায় একই সময়ে যাত্রা শুরু করা সালমান শাহ‘র সাথে জুটিবন্ধ হয়ে একের পর এক ব্যবসাসফল ছবি উপহার দেন শাবনূর। সালমান শাহ’র মৃত্যুর পরেও তার সেই অগ্রযাত্রা বন্ধ হয় নি। মান্নারিয়াজ, শাকিল, ফেরদৌস সহ বিভিন্ন নায়কের সাথে জুটি বেধে সফল ছবি উপহার দিয়েছেন শাবনূর।

বিয়ে নিয়ে শাবনূর একাধিক গুঞ্জনের জন্ম দেন। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরের ৪ তারিখ একই সাথে বিয়ে এবং অনাগত সন্তানের সংবাদ জানিয়ে আলোচনা তৈরী করেন শাবনূর। তার সৎবাবা শাহজাহান চৌধুরীর বরাতে জানা যায় ব্যবসায়ী অনিক মাহমুদের সাথে শাবনূর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন অনেক আগেই। উল্লেখ্য, বধূ তুমি কার চলচ্চিত্রে অনিক শাবনূরের বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন। বিয়ের তারিখ নিয়েও বিভ্রান্তির সংবাদ প্রকাশিত হয় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে – শাবনূর ২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর বিয়ের তারিখ হিসেবে স্বীকার করলেও অনিক মাহমুদ ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বরকে বিয়ের তারিখ হিসেবে ঘোষনা দেন। ২৯ ডিসেম্বর তারিখে শাবনূর অস্ট্রেলিয়ার সিডনিস্থ ওব্যান হাসপাতালে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। ছেলের নাম রাখা হয়েছে আইজেন নিহান।

বিয়ে নিয়ে শাবনূরের এই লুকোচুরি নিয়ে ৪ জানুয়ারী ২০১৪ সালে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন লিখেন,  ‘শাবনূর এর আগেও চাইনিজ বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক জ্যাকলিনকে বিয়ে করেছিলেন এবং তাকে বাংলাদেশও ঘুরিয়ে নিয়ে গেছেন। কক্সবাজার থেকে হানিমুন করে ঢাকায় ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনারও সম্মুখীন হয়েছেন। কিন্তু এই বিয়ের কথা শাবনূর বরাবরই অস্বীকার করে গেছেন। তবে তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনেরা বিষয়টি স্বীকার করে জানিয়েছিলেন, শাবনূর জ্যাকলিনের বিয়েটা চীনে হয়েছিল এবং এই বিয়েতে শাবনূরের মা আমেনা বেগম মিলি উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু এবারের বিষয়টি একেবারেই ভিন্ন। শাবনূরের মা হওয়ার সংবাদ তার সৎবাবা শাহজাহান চৌধুরী রীতিমতো স্বেচ্ছাপ্রণোদিত হয়ে চারদিকে ছড়িয়ে দিয়েছেন এবং শাবনূরের বাবা হিসেবে বিভিন্ন পত্রিকায় সাক্ষাৎকারও দিয়েছেন জন্মদাতা পিতার মতো। শাবনূরের ছোটবেলার গল্পও বলেছেন। অথচ শাবনূরের জন্মদাতা পিতা কাজী নাসির দুই বছর আগে সরকারবিরোধী আন্দোলনের সময় সিলেটে বাসে পুড়ে নিহত হন। এ বিষয়টিও শাবনূর গোপন রাখেন মিডিয়ার ভয়ে। আর শাহজাহান চৌধুরীর সঙ্গে শাবনূরদের পরিচয় ১৯৯৬ সালে আবিদ হাসান বাদল পরিচালিত ‘তুমি শুধু তুমি’ ছবির শুটিংয়ে। তারপর শাবনূরের মায়ের সঙ্গে প্রেম এবং বিয়ে। শাবনূর শাহজাহান চৌধুরীকে ‘আঙ্কেল’ বলে সম্বোধন করেন।’

প্রায় বিশ বছর চলচ্চিত্রের নায়িকা হিসেবে অভিনয় করা শাবনূর চলচ্চিত্র পরিচালনায় আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থানকালীন সময়ে তিনি চলচ্চিত্র পরিচালনা সংক্রান্ত শর্ট কোর্স করেছেন বলে জানিয়েছেন এক সাক্ষাতকারে।

শাবনূর পড়াশোনা করেছেন আই এ পর্যন্ত। চলচ্চিত্রে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, বাচসাস পুরস্কার ইত্যাদি জিতে নিয়েছেন। শাবনূররা মোট তিন ভাই-বোন – নূপুর (শাবনূর), ঝুমুর, তমাল।

 

ব্যক্তিগত তথ্যাবলি

পুরো নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর
ডাকনাম শাবনূর
জন্ম তারিখ ডিসেম্বর ১৭, ১৯৭৯
জন্মস্থান নাভারণ, যশোর।

কর্মপরিধি